অন্যান্য

বাইরে কুকুরের ৬ দিনের অপেক্ষা ,মালিক হাসপাতালে ভর্তি।

তুরস্কের অধিবাসী সেমাল সেনতুর্ক নামে এক ব্যক্তি অসুস্থ হয়ে ১৪ জানুয়ারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। কিন্তু মনিবের প্রতি নিষ্ঠাবান এক কুকুর মায়া ত্যাগ করতে পারেনি। তাইতো প্রতিদিন মনিবের খোঁজে হাসপাতালের বাইরে দিনের পর দিন অপেক্ষা করেছে তার পোষ্য কুকুরটি। ছয়দিন পর কুকুরটি তার মনিবের দেখা পায়।

কুকুরটির নাম বনকুক। প্রাণীটি তার মনিব সেমাল সেনতুর্ককে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া অ্যাম্বুলেন্স অনুসরণ করে প্রতিদিনই হাসপাতালে আসতে থাকে বলে ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্যা গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে জানায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ১৪ জানুয়ারি উত্তর-পূর্ব তুরস্কের কৃষ্ণ সাগর উপকূলের ট্রাবসন শহরের এক হাসপাতালে ওই ব্যক্তিতে অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় তার পোষ্য কুকুর বনকুক অ্যাম্বুলেন্সকে অনুসরণ করে হাসপাতালে যায়। এরপর তার মালিক সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত ওই কুকুর প্রতিনিয়ত হাসপাতালে গেছে। সেখানে তার মালিকের জন্য অপেক্ষা করেছে। প্রতিদিন সকাল ৯টার দিকে কুকুরটি হাসপাতালের সামনে যেত এবং রাত পর্যন্ত অপেক্ষা করত। তবে সে ভেতরে প্রবেশ করত না। কখনো খুব উদ্বিগ্নভাবে হাঁটাচলা করত, কখনো চুপচাপ বসে থাকত।

সেনতুর্কের মেয়ে আয়নুর এগেলি বলেন, তিনি বনকুককে বাড়ি নিয়ে যান কিন্তু সে বারবার হাসপাতালে ছুটে আসে।

এরপর বুধবার (২০ জানুয়ারি) ওই কুকুরের মালিক হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান। হুইলচেয়ারে করে তিনি যখন বের হয়ে আসেন তখন দেখা যায়, কুকুরটি তার মনিবের কাছে দৌড়ে ছুটে আসে। সে তার মনিবের কোলে ওঠার চেষ্টা করে। একপর্যায়ে তার পায়ের জুতায় কামড় দিয়ে ধরে থাকে। পরে, তার মনিব সেনতুর্ক তার শরীরে হাত বুলিয়ে দিলে সে শান্ত হয়। পরে সেনতুর্ক তার পোষ্য কুকুরকে নিয়ে বাড়ি ফেরেন।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button