বাংলাদেশ

উচ্চশিক্ষায় অনেক বড় ধরনের পরিবর্তন আনা হচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী

উচ্চশিক্ষায় বড় ধরনের পরিবর্তন আনা হচ্ছে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, উচ্চশিক্ষায় নতুন সম্ভাবনা তৈরি করা হবে। শিক্ষার্থীরা যেকোনো বিষয়ভিত্তিক পড়ালেখা করার সুযোগ পাবে।

রোববার (২৪ জানুয়ারি) আন্তর্জাতিক শিক্ষা দিবস-২০২১ উপলক্ষে বাংলাদেশ ইউনেস্কো জাতীয় কমিশনের আয়োজনে রাজধানীর ব্যানবেইজ ভবনে এক অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আগামী ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন কাজ শেষ করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার উপযোগী করে তুলতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ কার্যক্রম শেষ হলে আমরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলব নাকি আরও কিছুদিন অপেক্ষা করব, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের সিলেবাস সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর তাদের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শেষ করতে সপ্তাহে ছয়দিন ক্লাস নেয়া হবে। বাকিদের সপ্তাহে একদিন ক্লাস নেয়া হবে। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পাঠদান কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।

ডা. দীপু মনি বলেন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে আমাদের নতুন সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। বর্তমানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অনলাইন ও অফলাইন ক্লাস কার্যক্রম নিয়মিত পরিচালনা করা হবে। সবার জন্য অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রি প্রয়োজন নেই। এ কারণে ২০২০ সাল থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে চিঠি দিয়ে নতুন করে কলেজগুলোতে আর এ স্তরে অনুমোদন না দেয়ার সুপারিশ জানানো হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী। মূল আলোচক অর্থনীতিবিদ ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব গোলাম মো. হাসিবুল আলম, ইউনেস্কোর বাংলাদেশ প্রতিনিধি মিস বিয়াট্রিস কালদুন প্রমুখ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button