পেন্সিলের স্কেচে আব’রার হ’ত্যা বিবরন (দেখে নিন)

এক্সক্লুসিভ বাংলাদেশ

শনিবার আঁকানো এ সব স্কেচে দেখা যায়, আবাসিক হলের নিজ রুমে বসে পড়ছেন আবরার ফাহাদ।এ সময় দরজায় ঠকঠক শব্দ। পরে দরজা খুলতেই তাকে বলা হয়, ভাইয়েরা ডাকছে। তাকে নেয়া হয় ২০১১ নম্বর রুমে। এরপর আবরারকে বলা হয়, তুইতো শিবির।

এরপর তাকে বেধড়ক মারধর করা শুরু হয়। তাকে মারধরের সময় রুমের বাইরে একটি কুকুরকে ঘেউ ঘেউ করতে দেখা যায়। এরপর আরেকজন বলে, ওকি বেঁচে আছে। রুমে নিয়ে চল আগে। এরপর তাকে ২০০৫ নম্বর রুমে নেয়া হয়।

এরপর আবরার বমি করতে থাকে। একজন বলে, মাইর মনে হয় বেশি হয়েছে। আরেকজন বলে উঠে, ও নাটক করছে। অন্যজন বলে, আরও দুই ঘণ্টা মারা যাবে ওকে।

পরের ছবিতে দেখা যায় একজনকে ফোন করতে। সে বলে, মামা শিবির ধরেছি, নিয়া যান। আর পাশে পড়ে আছেন আবরার ফাহাদ।

এরপর আবরারকে হলের নিচতলায় নিয়ে গিয়ে ফেলে রাখা হয়। পুলিশ আসে এবং বলে, সে মারা গেছে। আমরা নিতে পারব না।

collected: daily jugantor