ট্রেনের ভাড়াটুকু জোগার করাটাও ছিল তাঁর পক্ষে কষ্টকর, আজ তাঁর ছবি বিমানের গায়ে, কথা গুলো বলছিলেন….

এক সময় মুম্বই আসার জন্য ট্রেনের ভাড়াটুকু জোগার করাটাও ছিল তাঁর পক্ষে কষ্টকর। আর আজ তাঁর ছবি বিমানের গায়ে। পর্দার খলনায়ক বাস্তবে সারা দেশের কাছে নায়ক। এর আগে মানবসেবার জন্য ‘স্পেশ্যাল হিউম্যানিটেরিয়ান অ্যাকশন অ্যাওয়ার্ড’ পেয়েছেন অ’ভিনেতা সোনু সুদ। সম্প্রতি এক বিমানসংস্থা তাঁকে সম্মান জানাল। সোনুর ছবি বিমানের গায়ে। তাতে লেখা, ‘রক্ষাক’র্তা সোনু সুদকে কুর্নিশ’।

অ’ভিনেতাকে ‘মসিহা’ নাম দিয়েছেন দেশবাসী। লকডাউনের সময়ে দেশের নানা প্রান্তে আট’কে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি পৌঁছানোর ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন। স্বাস্থ্যকর্মীদের থাকার জন্য নিজের হোটেলের দরজা খুলে দিয়েছিলেন। বিদেশে আট’কে থাকা ভারতীয় পড়ুয়াদের দেশে ফেরার জন্য বিমানের ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন। এ ছাড়াও বহু মানুষের খাবার, পড়াশোনার খরচ, চিকিৎসার খরচ— এ সবের দায়িত্বও নিয়েছিলেন তিনি। সব মনে রেখেছে দেশবাসী। তারই প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে একে একে। এ বার বিমানসংস্থাও সোনু সুদকে সম্মান দিতে এগিয়ে এল।

এই ঘটনায় সোনুর মনে পড়ে গিয়েছে, বহু বছর আগের দিনগু’লির কথা। যখন পঞ্জাবের মগা থেকে মুম্বই এসেছিলেন অ’ভিনেতা হওয়ার জন্য। সামর’্থ্য ছিল না ট্রেনে সংরক্ষিত টিকিট কা’টার। তাঁর মনে পড়েছে বাবা-মায়ের কথা। কঠিন দিনে তাঁরাই ছিলেন সোনুর পাশে। ছেলের সাফল্যের এই চেহারা তাঁরা দেখতে পাননি। এ সবই সোনু লিখেছেন নেটমাধ্যমে। সেই সঙ্গে পোস্ট করেছেন নিজের ছবি-সহ বিমানের ছবি। লিখেছেন, ‘ভালবাসার জন্য অনেক ধন্যবাদ সবাইকে। মা ও বাবা, তোমা’দের কথা মনে পড়ছে’।