যারা শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পাচ্ছেন ।

চলতি বছর শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের জন্য প্রাথমিক মনোনয়ন তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। সোমবার (৩১ জানুয়ারি) প্রকাশিত সম্ভাব্য তালিকায় নাম আছে পোপ ফ্রান্সিসসহ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও), ব্রিটিশ পরিবেশবিষয়ক টিভি সাংবাদিক ডেভিড অ্যাটেনবার্গ এবং বেলারুশের ভিন্নমতাবলম্বী নেতা সভেৎলানা সিনোস্কায়ার। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রায় ২ বছর ধরে চলমান করোনাভাইরাস মহামারির কারণে ডব্লিউএইচও’র নামটি এবার সবচেয়ে বেশি আলোচনায় এসেছে। এখনও মহামারি মোকাবিলায় জাতিসংঘের এই সহযোগী সংস্থাটি কাজ করে যাচ্ছে। যার কারণে চলতি বছরের শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের জন্য সংস্থাটি মনোনয়ন পেয়েছে।
তালিকায় আরও আছে ডেনমার্কের আলোচিত কিশোরী গ্রেটা থুনবার্গ, মিয়ানমার ন্যাশনাল ইউনিটি গভর্নমেন্ট, দ্বীপরাষ্ট্র টুভ্যালুর পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইমন কোফ ও জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে কাজ করা সংগঠন ফ্রাইডে ফর ফিউচার মুভমেন্টের নাম।

নরওয়েজিয়ান আইনপ্রণেতারা শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের একটি তালিকা তৈরি করে। দীর্ঘদিনের প্রথা অনুযায়ী নরওয়েজিয়ান নোবেল কমিটি শান্তিতে নোবেলজয়ীদের নাম প্রকাশ করে থাকে, কিন্তু এখনো তারা এই বিষয়ে কিছু জানায়নি।
প্রায় ৫০ বছর ধরে পুরস্কার ঘোষণার আগে এই কমিটি পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের নাম-পরিচয় গোপন রেখে আসছে। কিন্তু মনোনোয়নের কাজে সহায়তা করা নরওয়েজিয়ান আইনপ্রণেতারা কিছু কিছু নাম প্রকাশ করে থাকেন।

সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি) বিশ্বব্যাপী আলোচিত বেশ কিছু ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নাম প্রকাশ করেছেন তারা।