এবার বাস্তব জীবনে পুষ্পার মতো লাল চন্দন পাচার করতে গিয়ে ধরা একযুবক।

‘পুষ্পা ঝুঁকেগা নেহি’ বা ‘তেরি ঝলক সরফি’ সোশ্যাল মিডিয়া খুললেই এখনও ভুরি ভুরি ভিডিও, রিলের ছড়াছড়ি। আল্লু অর্জুন অভিনীত তেলেগু ব্লকবাস্টার ‘পুষ্পা, দ্য রাইস’ সিনেমা ও তার গান আপাতত আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। ভাইরাল পুষ্পাকে অনেকেই বিভিন্ন ভাবে রিয়েল লাইফে আনার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু রিয়েল লাইফে রিলের পুষ্পা-র মতো ডেয়ারডেভিল হতে গিয়ে শ্রীঘরে যেতে হল এক যুবককে। ‘সিনেমার স্টাইলে’ লাল চন্দনকাঠ পাচার করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়েছে বেঙ্গালুরুর এক যুবক। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পেশায় ড্রাইভার ইয়াসিন ইনাইয়ুথুল্লাকে গ্রেফতার করা হয়েছে লাল চন্দনকাঠ পাচার করার সময়।

কর্ণাটক-অন্ধ্রপ্রদেশ সীমানার দিকে ট্রাক নিয়ে যাওয়ার পথে সাঙ্গলি জেলার মীরজ নগরের গাঁধী চকের কাছে গ্রেফতার করা হয় তাঁকে। মহারাষ্ট্র পুলিশ ইয়াসিনের ট্রাক থেকে প্রায় ২.৪৫ কোটি টাকার লাল চন্দনকাঠ উদ্ধার করেছে। রিলের পুষ্পাও চন্দনকাঠ পাচার করত। প্রথমে চন্দনকাঠ রেখে তার ওপরে দুধ বা সেই জাতীয় কোনও জিনিস দিয়ে চলত পাচার। যাতে পুলিশের সন্দেহ না হয়। সেই পন্থা নিয়ে রিয়েল লাইফে ইয়াসিন লাল চন্দন কাঠ নিচে রেখে তার ওপরে ফল ও সবজি চাপিয়ে ভরাট করেছিল। পাশাপাশি ট্রাক করোনাকালের অত্যাবশ্যকীয় পণ্যসামগ্রী পরিবহনের ভুয়ো স্টিকারও জোগাড় করে লাগিয়েছিল গাড়িতে।

পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে কর্ণাটক টপকে গেলেও মহারাষ্ট্রের একটি অংশ টপকে অন্ধ্রপ্রদেশে ঢোকার আগে তাকে আটকায় মহারাষ্ট্র পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদ ও তারপর তল্লাশি চালিয়ে পুলিশ উদ্ধার করে ব্যাপক পরিমাণে চন্দনকাঠ। যার পরই ইয়াসিনকে গ্রেফতার করা হয়। আপাতত তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে পুলিশ। খতিয়ে দেখার চেষ্টা হচ্ছে এই লাল চন্দনকাঠ পাচারের পিছনে ইয়াসিন একাই যুক্ত নাকি কোনও বড় চক্র কাজ করছে এর সঙ্গে।