মা নে’শায় মা’তাল বয়ফ্রেন্ডেদের সাথে , সন্তান মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে আ’ত্মহত্যা।

ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের লুইজিয়ানায়। রাস্তায় গাড়ি থামিয়ে সামনের সিটে বসে বন্ধুর সাথে নেশায় মত্ত ছিলেন মা। আর পেছনে সিটে বসেছিল তার তিন সন্তান। মাদকাসক্ত ওই নারীর ৪ বছর বয়সী এক সন্তান সিটের নিচ থেকে একটি বন্দুক পায়। আর সেই বন্দুক মাথায় ঠেকিয়ে গুলি করে। এরপর তড়িঘড়ি করে হাসপাতালে নিলেও বাঁচানো যায়নি তাকে। হাসপাতালেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে শিশুটি।
ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিহত শিশুর নাম জ্যারিয়ন ওয়াকার। জেফারসন প্যারিশ শেরিফ জোসেফ লোপিন্টো সোমবার (৩১ জানুয়ারি) এ তথ্য জানিয়েছেন।

এক সংবাদ সম্মেলনে লাপিন্টো জানিয়েছেন, রাত ১০টা ৪৫ মিনিটের দিকে জ্যারিয়ন নিজের মাথায় গুলি করে। শনিবার (২৯ জানুয়ারি) নিউ অরলেন্সের একটি আবাসিক এলাকায় এক ঘটনা ঘটে। গুলি করার পর তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে মৃত্যু হয় তার। এ ঘটনায় ওই মা এবং তার বন্ধুর পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। এমনকি জ্যারিয়নের মৃত্যুর ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। তবে শেরিফের অফিস কোনো মামলা করলে সরকারি কৌঁসুলিরা এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।

লাপিন্টো বলেন, শিশুর মা এবং তার বন্ধু আমাদের সঙ্গে সহযোগিতা করেছেন। তিনি বলেন, আমরা সবসময়ই মানুষের ওপর দোষ চাপাতে পারি। কিন্তু এখনই কাউকে গ্রেফতার করার সময় আসেনি। কেননা তারা একটি শিশু হারিয়েছে। আর এটা ইচ্ছাকৃত ছিল না। সূত্র : ওয়াশিংটন পোস্ট