শক্তিশালী কুমিল্লাকে ৩২ রানে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে সাকিবের বরিশাল

সিলেটে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৫৫ রান জড়ো করে বরিশাল। প্রথমবার দেড়শ ছাড়ানোর দিনেও ব্যাট হাতে উজ্জ্বল ছিলেন সাকিব। ৩৭ বলের মোকাবেলায় ৪টি চার ও ২টি ছক্কা হাঁকান তিনি।

তার আগে মুনিম শাহরিয়ারের ব্যাটে বরিশাল পায় ভালো শুরু। ৪টি চার ও ৩টি ছক্কায় ২৫ বলে ৪৫ রান করা মুনিম অল্পের জন্য পাননি অর্ধশতকের দেখা। ৩৭ বলে ৩১ রান করে অপরাজিত থাকেন তৌহিদ হৃদয়। কুমিল্লার পক্ষে তানভীর ইসলাম শিকার করেন ২ উইকেট।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ভয়ানক ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে কুমিল্লা। অধিনায়ক ইমরুল কায়েসকে হারিয়ে শুরু হয় উইকেট পতনের, ৩৫ রানেই সাজঘরে ফেরেন ৩ ব্যাটার। মুমিনুল হকের ৩০ বলে ৩০ ও লিটন দাসের ১৭ বলে ১৯ রানের দুই ইনিংস থামলে খেই হারিয়ে ফেলে কুমিল্লা।

বোলাররা সহজ করে দেন বরিশালের জয়।
শেষদিকে ১৩ বলে ১৭ রান করেন করিম জানাত; ১৪ বলে ২১ রান করে অপরাজিত থাকেন তানভীর ইসলাম। এছাড়া আর কারও রানই দুই অঙ্কের দেখা পায়নি। শেষপর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে কুমিল্লার সংগ্রহ দাঁড়ায় ১২৩ রান।

বরিশালের পক্ষে নাঈম হাসান তিনটি এবং সাকিব আল হাসান ও ডোয়াইন ব্রাভো দুটি করে উইকেট শিকার করেন। মঈন আলীর (১১ বলে ৬ রান) উইকেট পেয়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত।

৭ ম্যাচে ১১ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে এখন বরিশাল। শীর্ষস্থান হারানো কুমিল্লা ৬ ম্যাচ শেষে ৯ পয়েন্টের অধিকারী।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
টস : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স

ফরচুন বরিশাল : ১৫৫/৫ (২০ ওভার)
সাকিব ৫০, মুনিম ৪৫, হৃদয় ৩২*
তানভীর ২২/২, করিম ৭/১, মঈন ২১/১, মুস্তাফিজ ৩০/১

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স : ১২৩/৯ (২০ ওভার)
মুমিনুল ৩০, লিটন ১৯
নাঈম ২৯/৩, সাকিব ২০/২, ব্রাভো ২৯/২

ফল : ফরচুন বরিশাল ৩২ রানে জয়ী।