আবারো বৃষ্টি হতে যাচ্ছে বাড়বে শীত ও ।


দেশে কমতে শুরু করবে শৈত্যপ্রবাহ। গত কয়েকদিন থেকে দেশে শৈত্যপ্রবাহ না থাকলেও আবহাওয়া অধিদপ্তর ফের বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে । এর আগে বিগত কয়েক দিন বৃষ্টিপাতের পর গত রবিবার থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়।
আবহাওয়া অধিদপ্তর গতকা সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) জানায়, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, নওগাঁ জেলা ও সীতাকুণ্ড উপজেলাসহ রংপুর বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে, যা কিছু জায়গা থেকে প্রশমিত হতে পারে।

আবহাওয়াবিদ মো. আব্দুল হামিদ মিয়া গনমাধ্যমে বলেন, ‘মঙ্গলবার ( ৮ ফেব্রুয়ারি) থেকেই শৈত্যপ্রবাহ কমতে শুরু করবে। বুধবার থেকে শৈত্যপ্রবাহ কেটে গেলেও আবার বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। ’
তিনি আরো বলেন, ‘এবার শীত মৌসুমের শুরু থেকেই আকাশে মেঘ লক্ষ করা গেছে। আবার মেঘ কেটে গেলে শীত বাড়ছে। এ বছর শীত মৌসুমে যে বৃষ্টি হয়েছে, তা আগে দেখা যায়নি। আবার হঠাৎই বৃষ্টি, হঠাৎই শৈত্যপ্রবাহও প্রথমবারের মতো দেখা যাচ্ছে। আবহাওয়ার এই আচরণগত পরিবর্তন আগের বছরগুলোতে দেখা যায়নি। ’

শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারা দেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও নদী অববাহিকায় মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা এবং দেশের অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে। সারা দেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা সামান্য পরিবর্তন হতে পারে।
সোমবার দেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে টেকনাফে, ২৮ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে তেঁতুলিয়ায়, ৭ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে যথাক্রমে ২৩ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও ১২ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

চলতি শীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩১ জানুয়ারি তেঁতুলিয়ায়, ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বর্তমানে বছরের চতুর্থ শৈত্যপ্রবাহ চলছে।