বিয়ের অনুষ্ঠানে কুয়ায় পড়ে একসঙ্গে নারী-শিশুসহ ১৩ জনের মৃত্যু


ভারতের উত্তরপ্রদেশে ঘটেছে এক মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। বিয়ের অনুষ্ঠানের আনন্দঘন পরিবেশের মধ্যেই শুরু হয় শোকের মাতম। স্ল্যাব ভেঙে কুয়ায় পড়ে একসঙ্গে নারী ও শিশুসহ ১৩ জন মারা গেছেন। আহত হয়েছে দুই জন। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় রাতে ভারতের উত্তরপ্রদেশের পূর্বাঞ্চলের কুশিনগর জেলার নেবুয়া নৌরাঙ্গিয়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে।

বিয়ের অনুষ্ঠানে নারী এবং শিশুরা একটি পুরোনো কূপের স্ল্যাবের ওপর বসে ছিল। হঠাৎ স্ল্যাবটি ভেঙে পড়ে। এর ওপরে যারা বসে ছিল তারা কূপে পড়ে যায়। তাদের উদ্ধার করে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ১৩ জনকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন ২ জন। হাসপাতালসহ পুরো এলাকাজুড়ে চলছে স্বজনহারাদের শোকের মাতম।

জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এস রাজালিঙ্গম জানান, আমরা তথ্য পেয়েছি যে, বিয়ের অনুষ্ঠানের সময় কিছু লোক একটি কূপের স্ল্যাবের ওপর বসে ছিল। দুর্ঘটনাক্রমে স্ল্যাব ভেঙে কূপে পড়ে ১১ জন মারা গেছে। আরও দুজন গুরুতর আহত হয়েছে। লোকজনের ভারে স্ল্যাবটি ভেঙে পড়ে। নিহতদের পরিবারকে ৪ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।

পরে গোরখপুর জোনের এডিজি অখিল কুমার জানান, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩ জনে পৌঁছেছে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন এবং আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেছেন।