‘ভারতের বেশিরভাগ সাংসদ ধর্ষণ-হত্যায় অভিযুক্ত’ : সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং


ভারতের সাংসদদের নিয়ে সিঙ্গাপুরের সংসদে বিতর্কিত মন্তব্য করে তোপের মুখে সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং। ভারতের বেশিরভাগ সাংসদদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগসহ একাধিক ফৌজদারি অভিযোগ রয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। এই মন্তব্যকে ‘অনভিপ্রেত’ বলে উল্লেখ করে ভারত সিঙ্গাপুরের দৃষ্টি আকর্ষণ করছে। এ ঘটনায় ভারতে নিযুক্ত সিঙ্গাপুরের রাষ্ট্রদূত সাইমন ওং -কে তলব করেছে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। আনন্দবাজার পত্রিকা এ তথ্য জানিয়েছে।

সংবাদ সংস্থা পিটিআই সূত্র জানা গিয়েছে, সংসদে গণতন্ত্র নিয়ে একটি আলোচনায় বক্তৃতা করতে গিয়ে সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং বলেন, ‘নেহরুর ভারত এমন জায়গায় পৌঁছেছে যেখানে মিডিয়া রিপোর্ট অনুসারে, লোকসভার প্রায় অর্ধেক সাংসদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগ-সহ একাধিক ফৌজদারি অভিযোগ রয়েছে। যদিও এতে একথাও বলা হয়, এই অভিযোগগুলির মধ্যে অনেকগুলিই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।’

গণতন্ত্র নিয়ে এক আলোচনায় লি ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুসহ বিভিন্ন বিশ্ব নেতার কথা উল্লেখ করেন। এ প্রসঙ্গে সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যে সব নেতা দেশের স্বাধীনতার জন্য লড়াই করেছেন এবং তা অর্জন করেছেন, তারা প্রায়শই অসাধারণ সাহসী, সংস্কৃতিবান এবং অসামান্য ক্ষমতা অধিকারী ও ব্যতিক্রমী ব্যক্তি হন। তারা আগুনের মধ্যে নিজেদের বলি দিয়ে মানুষ ও জাতির নেতা হিসাবে গণ্য হন।’

তিনি উদাহরণ দিয়ে বলেন, ‘এমন মানুষ হলেন ডেভিড বেন-গুরিয়ন (ইজরায়েলের প্রথম প্রধানমন্ত্রী), জওহরলাল নেহরু। এঁরা নতুন বিশ্ব গড়তে সাহসী পদক্ষেপ করেন। জনগণের প্রত্যাশা পূরণের চেষ্টা করেন। কিন্তু পরবর্তী প্রজন্ম তাদের সেই উদ্যোগ ও প্রত্যাশাকে বজায় রাখতে পারে না।’ সূত্র : পিটিআই