ভারত শাসিত কাশ্মিরের বিশাল সিঙ্কহোল প্রাকৃতিক কারণে: কর্মকর্তা


ভারত শাসিত কাশ্মিরের অনন্তনাগ জেলায় দেখা দিয়েছে বিশালাকৃতির একটি সিঙ্কহোল। কর্মকর্তারা বলছেন প্রাকৃতিকভাবে সংগঠিত ভূতাত্ত্বিক ঘটনার কারণেই এটি তৈরি হয়েছে। আর এতে আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই বলে শুক্রবার আশ্বস্ত করেছেন তারা।

গত ১১ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় সময় বিকাল চারটার দিকে কাশ্মিরের দক্ষিণাঞ্চলীয় জেলা অনন্তনাগের ব্রিঞ্জি নাল্লাহ এলাকায় সিঙ্কহোলটি দেখা যায়। এতে একটি জলস্রোতের প্রবাহ বিঘ্নিত হয়। ঘটনার পরই অনন্তনাগ জেলা প্রশাসন জানায় এটির বিস্তার ঠেকাতে প্রাথমিক পদক্ষেপ নেওয়ার পাশাপাশি এর বৈজ্ঞানিক কারণ অনুসন্ধান শুরু হয়েছে।

অনন্তনাগের ডেপুটি কমিশনার পিযুষ সিংলা বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে পাওয়া ব্যাখ্যাটি ছিল সিঙ্কহোলটি বন্ধ করে দিয়ে পানির প্রবাহটি ঘুরিয়ে দেওয়া। তবে প্রাকৃতিক কারণে ভূতাত্ত্বিক ঘটনায় সিঙ্কহোল তৈরি হওয়ায় এবং তাৎক্ষণিকভাবে কোনও বিপদের ইঙ্গিত না থাকায় ঘটনাটি আরও বিজ্ঞান সম্মতভাবে খতিয়ে দেখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।’

ডেপুটি কমিশনার জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে চারটি টেকনিক্যাল টিম। শ্রীনগরের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব টেকনোলোজি, কাশ্মির বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগ, ফিজারিজ বিভাগ এবং ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের এসব টিম ঘটনাস্থলে টেকনিক্যাল পরীক্ষা চালিয়েছে।

পিযুষ সিংলা বলেন, দলগুলোর বিস্তারিত জরিপ অনুযায়ী জানা গেছে সিঙ্কহোলটি প্রাকৃতিক ভূতাত্ত্বিক কারণ, পাথর গঠনের রাসায়নিক পরিবর্তনে তৈরি হয়েছে। তিনি জানান, জরিপে ইঙ্গিত পাওয়া গেছে সিঙ্কহোলটি দেখা যাওয়ার পর থেকে এতে অনবরত পানি পড়তে থাকায় মাটির নিচে গুহার নেটওয়ার্ক কিংবা জলাধার থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

সূত্র: এনডিটিভি