ইউক্রেনে রুশ অভিযান, নিহত শতাধিক। বড় ধরণের যুদ্ধের আভাস।


ইউক্রেনে রুশ অভিযান শুরুর পর থেকেই হতাহতের খবর আসতে শুরু করেছে। রুশ অভিযানের প্রথম দিনেই দুই পক্ষ মিলে অন্তত ১০০ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে ৯০ জনই সামরিক বাহিনীর সদস্য। এ ছাড়া আহতের সংখ্যা কয়েক ডজন ছাড়িয়ে গেছে। এ ছাড়া, রাশিয়ার পাঁচটি যুদ্ধ বিমান ও একটি হেলিকপ্টার ধ্বংসের দাবি করেছে ইউক্রেন।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, এ পর্যন্ত ইউক্রেনের ৪০ জন ও রাশিয়ার ৫০ জনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। তবে আল জাজিরা নিরপেক্ষ কোনো সূত্র থেকে এ তথ্য নিশ্চিত হতে পারেনি। অন্যদিকে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন বলছে, ইউক্রেনের ৪০ সেনার পাশাপাশি ১০ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের দপ্তরের একটি সূত্রের বরাত দিয়ে সিএনএন এ কথা বলেছে।

ডেইলি মেইল এক প্রতিবেদনে জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনের দনবাস অঞ্চলে পুরো মাত্রায় সামরিক অভিযান শুরুর নির্দেশ দিয়েছেন। ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, প্রতিবেশী বেলারুশকে সঙ্গে নিয়ে রুশ সেনারা তাদের উপর হামলা করছে। বর্তমানে রুশ ও বেলারুশের সেনারা কিয়েভের মাত্র ১২০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে।

ইউক্রেন দাবি করেছিল রাশিয়া তাদের বিভিন্ন স্থাপনা ও জনবহুল এলাকায় হামলা করছে। তবে, তা অস্বীকার করেছেন রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী। এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি জানান, তারা শুধু সামরিক স্থাপনাকে কেন্দ্র করে হামলা পরিচালনা করছে। ইতোমধ্যে, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট দেশে মার্শাল ল জারি করেছেন। তিনি জনগণকে উদ্বিগ্ন না হওয়ার আহ্বান জানান। সূত্র: আল জাজরিা, সিএনএন