একা লড়ছি আমরা, ক্ষমতাধরেরা কেবল দেখছে , তাদের কারণেই এই যুদ্ধ লেগেছে: ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট


পশ্চিমা যেসব দেশকে মিত্র বলে ভেবেছিলেন, তাদের একটিকেও পাশে পাচ্ছেন না ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। তাই রাশিয়ার হামলা থামাতে ইউক্রেনের পাশে দাঁড়াতে মিত্র দেশগুলোর প্রতি আবারও আহ্বান জানিয়েছেন জেলেনস্কি। খবর ইন্ডিপেন্ডেন্ট ও বিবিসির।

স্থানীয় সময় আজ শুক্রবার সকালে জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক ভাষণে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আজ সকালে আমরা একা আমাদের দেশকে রক্ষার জন্য লড়াই করছি। গতকালের মতোই বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশগুলো দূর থেকে কেবল সবকিছু দেখে যাচ্ছে।’

রাশিয়ার ওপর ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, তাইওয়ানসহ বিভিন্ন দেশ নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়েছে। অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড এর মধ্যেই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। তবে এসব নিষেধাজ্ঞায় রাশিয়ার কিছু আসে যায় বলে মনে করছেন না জেলেনস্কি। তাই তিনি প্রশ্ন তুলে বলেছেন, ‘গতকালের নিষেধাজ্ঞায় কি রাশিয়ার ওপর কোনো প্রভাব পড়েছে? আমরা আকাশে যে শব্দ শুনছি ও যা দেখছি তাতে মনে হচ্ছে নিষেধাজ্ঞা যথেষ্ট নয়।’

এদিকে ভিডিও বার্তায় যুদ্ধবিরতির জন্য রাশিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। জেলেনস্কি বলেন, ‘সহিংসতা নিরসনে ও হামলা বন্ধের জন্য রাশিয়াকে আমাদের সঙ্গে কথা বলতেই হবে। সেটা এখন হোক বা পরে।’

জেলেনস্কি আরও বলেন, ‘যত তাড়াতাড়ি আলোচনা শুরু হবে, রাশিয়ার ক্ষতি তত কম হবে। হামলা বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত আমরা আমাদের দেশ রক্ষার চেষ্টা চালিয়ে যাব।’

ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, রুশ সেনারা কিয়েভের পার্লামেন্ট থেকে প্রায় ৯ কিলোমিটার উত্তরের শহর ওবোলনে ঢুকে পড়েছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা টুইটে এ খবর জানান।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ওই টুইটে রুশ সেনাদের শত্রু হিসেবে উল্লেখ করে তাদের ঠেকাতে মলোতভ ককটেল তৈরির জন্য কিয়েভের বাসিন্দাদের অনুরোধ জানিয়েছে। তাদের নিরাপদে থাকতে বলা হচ্ছে। টুইটে বলা হয়, ‘বাসিন্দারা, সতর্ক হোন। বাড়ি থেকে বের হবেন না।’