আমি তো আর এফডিসি কর্তৃপক্ষ নই -জায়েদ খান

চলচ্চিত্রের ১৮ সংগঠন জায়েদ খানকে বয়কট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কারণ হিসেবে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন, শিল্পী সমিতির নির্বাচনের দিন চলচ্চিত্রের বাকি সংগঠনগুলোর সদস্যদের এফডিসিতে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি, যা অপমান ও লজ্জার বিষয়। তারা তদন্ত ও নানা পর্যালোচনা করে নিশ্চিত হয়েছেন জায়েদ খানের জন্যই মূলত সবার প্রবেশ নির্বাচনের দিন নিষিদ্ধ করা হয়।

তাই সম্মিলিতভাবে জরুরি বৈঠকে জায়েদ খানকে চলচ্চিত্রের সার্বিক কাজে বয়কটের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এই সিদ্ধান্তকে ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে দেখছেন জায়েদ খান। এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, আমি হাইকোর্টের রায় পেয়েই বলেছিলাম, এরপর আরও ষড়যন্ত্র হবে। বয়কটের এই সিদ্ধান্ত তারই অংশ।

যে অভিযোগে আমাকে বয়কট করা হয়েছে, তা শুনে অবাক হয়েছি। আমি এই ব্যাপারে কিছুই জানি না। এফডিসিতে কে প্রবেশ করবে, কে করবে নাÑএটা এফডিসি কর্তৃপক্ষের বিষয়। আমি তো আর এফডিসি কর্তৃপক্ষ নই। আমার এখতিয়ারের মধ্যেও পড়ে না। এটা আমার বাড়ি-ঘরও নয় যে, আমি চাইলে কাউকে ঢুকতে দেব, না চাইলে ঢুকতে পারবে না। এটা সরকারি প্রতিষ্ঠান। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেবেন, কে প্রবেশ করবে আর কে প্রবেশ করবে না।

বিস্ময়ের ব্যাপার হচ্ছে, এফডিসিতে প্রবেশ করতে পারবে না এই সিদ্ধান্ত সোহান ভাই (১৮ সংগঠনের আহŸায়ক ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান) উপস্থিত থেকে নিয়েছেন। এক্ষেত্রে আমার সম্পৃক্ততা কোথায়? জায়েদ বলেন, শিল্পী সমিতির যে দায়িত্ব আমার ওপর অর্পিত হয়েছে, তা পালন করাই এখন আমার মূল দায়িত্ব। আমি সেদিকেই মনোযোগ দিয়েছি।