৪০ মাইল দীর্ঘ রুশ সামরিক বহরের সেনারা এখন মৃত্যুর মুখে!

প্রায় ৪০ মাইল লম্বা রাশিয়ার সাঁজোয়া কনভয়টি ধীরে ধীরে ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের দিকে এগোচ্ছে। তবে বিভিন্ন রিপোর্টে বলা হয়েছে, রুশ ওই বিশাল কনভয় যান্ত্রিক ও জ্বালানি সরবরাহের সমস্যার কারণে আটকে গেছে। এটি পুরনো খবর।

নতুন খবর, আসছে দিনগুলোতে ইউক্রেনে তাপমাত্রা আরও কমবে, পড়বে প্রচণ্ড ঠাণ্ডা। এতে ওই ৪০ মাইল দীর্ঘ রুশ সামরিক বহরে থাকা দেশটির সেনারা ঠাণ্ডায় জমে মারা যেতে পারে। বাল্টিক নিরাপত্তা ফাউন্ডেশনের গ্লেন গ্রান্ট নামে একজন সিনিয়র প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞ নিউজউইককে এই কথা বলেছেন।

মার্কিন সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন নিউজউইককে এই বিশেষজ্ঞ বলেন, রুশ বাহিনীর এসব টাংক রেফ্রিজারেটরে পরিণত হতে পারে, যদি সেনারা এসব ট্যাংকের ইঞ্জিন চালু না রাখে।
গ্লেন গ্রান্ট বলেন, সেনারা অপেক্ষা করবে না, তারা ট্যাংক থেকে বের হবে, বনের দিকে হাঁটা শুরু করবে এবং ঠাণ্ডা থেকে মৃত্যু এড়াতে নিজেকে আত্মসমর্পণ করবে।
বিভিন্ন খবরে বলা হয়েছে, আটকা পড়েছে ওই রুশ কনভয়।

দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কিয়েভের দিকে যাওয়া বিশাল এই রুশ বহরের গতি অনেক ধীর হয়ে গেছে। বর্তমানে এই বহর মধ্য কিয়েভ থেকে ১৯ মাইল দূরে।

খবর, সপ্তাহের মাঝামাঝি সময়য়ে পূর্ব ইউরোপে ঠাণ্ডার পরিমাণ আরও বাড়বে। ধারণা করা হচ্ছে, সে সময় তাপমাত্রা মাইনাস ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নামবে। ইতোমধ্যে কিয়েভ ও অন্যান্য অঞ্চলের তাপমাত্রা মাইনাস ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

সাবেক ব্রিটিশ সেনা মেজর কেভিন প্রাইস ডেইলি মেইলকে বলেছে, পারদ নেমে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রুশ ট্যাংকগুলো ‘৪০-টন ফ্রিজার’ ছাড়া আর কিছুই হবে না।

তিনি আরও বলেন, তিক্ত পরিস্থিতি আর্কটিক-স্টাইলের যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত নয় এমন সেনাদের মনোবল ধ্বংস করবে। তথ্যসূত্র: এনডিটিভি।