ভাসানচরে আটকা পড়েছে চীনের রাষ্ট্রদূত

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচরে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে ফেরার সময় বৈরী আবহাওয়া ও নদীউত্তালের কারণে আটকা পড়েছে ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং। শুক্রবার (৩ জুন) দুপুর ১টায় জাহাজটি ভাসানচর থেকে রওনা হলে বৈরী আবহাওয়ার কারণে ১ ঘন্টা পর পুনরায় ফেরত আসে। এ বিষয়ে ভাসানচর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ইমদাদুল হক বিডি২৪লাইভকে বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে নৌবাহিনীর জাহাজে ভাসানচর এসে পৌঁছেন তিনি। আজ শুক্রবার (৩ জুন) ভাসানচর ত্যাগ করার কথা ছিল। সে অনুযায়ী দুপুর ১টায় জাহাজটি ভাসানচর থেকে রওনা হয়। কিন্তু বৈরী আবহাওয়ার কারণে ১ ঘন্টা পর পুনরায় ফেরত আসে।

এ বিষয়ে ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার (উপসচিব) মোহাম্মদ মোয়াজ্জেম হোসেন বিডি২৪লাইভকে বলেন, পূর্ব নির্ধারিত সিডিউল মোতাবেক শুক্রবার (৩ জুন) ভাসানচর ত্যাগ করার কথা থাকলেও বৈরী আবহাওয়ার কারণে তা সম্ভব হয়নি। আবহাওয়া ভাল থাকলে আগামীকাল সকালে ভাসানচর ত্যাগ করার কথা রয়েছে।তিনি আরোও বলেন,রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বিভিন্ন বয়সের রোহিঙ্গা সদস্যদের সঙ্গে তাদের সুযোগ-সুবিধা, জীবনযাত্রার মানসহ সার্বিক বিষয় নিয়ে মতবিনিময় করেন এবং ভাসানচরের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেন। রোহিঙ্গারা কক্সবাজারের তুলনায় ভাসানচর অনেক ভালো আছেন বলে রাষ্ট্রদূতকে জানান।

এদিকে ভাসানচরে অবস্থানরত এফডিএমএনদের সাংস্কৃতিক ও মানসিক উৎকর্ষতা বিকাশের লক্ষ্যে ডিসেম্বর ২০২১ খ্রিস্টাব্দ হতে ক্যাম্প ইনচার্জের কার্যালয়ে ভাসানচরের সরাসরি তত্ত্বাবধানে এবং এনজিও, আইএনজিওর সার্বিক সহযোগিতায় ৮ টি রোহিঙ্গা ফুটবল দল নিয়ে টুর্ণামেন্ট শুরু হয়।

বৃহস্পতিবার (২ জুন) বিকেলে ৬১ নং ক্লাস্টার সংলগ্ন ফুটবল মাঠে ৮ টি রোহিঙ্গা দল নিয়ে আয়োজিত ফুটবল টুর্নামেন্টের সমাপনী খেলা অনুষ্ঠিত হয়। সমাপনী খেলায় ট্রাইবেকারে ৬-৫ গোলে ব্রাদার্স ইউনিয়ন ফুটবল ক্লাবকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ড্রিম ফুটবল ক্লাব। রোহিঙ্গা শিবিরে ফুটবল উন্মাদনা উপভোগ করেছেন ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং। এরপর চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বিজয়ী ড্রিম ফুটবল ক্লাবের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন।

ভাসানচর ক্যাম্প ইন চার্জ মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে নৌবাহিনীর ওআইসি রশিদ আহমদ, এনএসআই ভাসানচরের উপ-পরিচালক মোঃল. আবু নোমান সরকার, এসিআইসি আহসান হাবীব, এপিবিএন সহকারী পুলিশ সুপার শহিদুল ইসলাম, জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট কেএইচ তাসফিকুর রহমান, ভাসানচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ইমদাদুল হক, ডিজিএফআই সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার ফারুকসহ বিভিন্ন এনজিও প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনের ফলে প্রায় সাড়ে ৮ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। এর আগে বিভিন্ন সময়ে আরও কয়েক লাখ রোহিঙ্গা এসে কক্সবাজারের পাহাড়ি এলাকায় আশ্রয় নেয়। এমন পরিস্থিতিতে রোহিঙ্গাদের চাপ সামলাতে সরকার এক লাখ রোহিঙ্গাকে নোয়াখালীর ভাসমানচরে স্থানান্তরের উদ্যোগ নেয়। এই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে ত্রয়োদশ ধাপে কক্সবাজার থেকে নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচরে পৌঁছেছে ২৯ হাজার ১১৬ জন রোহিঙ্গা। এছাড়া গত বছর মে মাসে সাগর পথে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার চেষ্টা করা ৩০৬ রোহিঙ্গাকে সমুদ্র থেকে উদ্ধার করে ভাসানচরে নিয়ে রাখা হয়।