মৌসুমীর সঙ্গে দূরত্ব স্বীকার করে নিলেন ওমর সানী

চিত্রনায়ক জায়েদ খান, ওমর সানী ও চিত্রনায়িকা মৌসুমী ইস্যুতে চলচ্চিত্রপাড়া গরম। গত দুইদিন ধরেই এই বিষয় নিয়ে বেশ বিতর্ক চলছে। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে অনেক কিছুই এখন পরিষ্কার হতে শুরু করেছে ভক্তদের কাছে। ঘটনার সুত্রপাত মুলত ডিপজলের ছেলের বিয়েতে। যেখানে স্ত্রীকে অসম্মান করার অভিযোগে জায়েদ খানকে চড় মারেন ওমর সানী। এসময় জায়েদ খান ওমর সানীকে গুলি করার হুমকি দেন বলে দাবি করেন এই নায়ক। এরপর গত রোববার শিল্পী সমিতির কাছে জায়েদ খানের বিরুদ্ধে মৌসুমীকে হয়রানি ও সংসার ভাঙার চেষ্টা করার অভিযোগ জমা দেন ওমর সানী।

ওমর সানীর এসব অভিযোগের একদিন পরেই মুখ খুললেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী। যেখানে জায়েদ খানের পক্ষ নিতেই দেখা গেছে তাকে। এক অডিওবার্তায়, স্বামীর এসব দাবিকে মিথ্যা বলেন মৌসুমী। সেই সঙ্গে জায়েদ খানকে অনেক ভালো ছেলে বলেও সম্বোধন করেন তিনি।

মৌসুমীর এমন দাবির পর আবারও মুখ খুলেছেন ওমর সানী। গণমাধ্যমকে দেওয়া এক বার্তায় তিনি স্বীকার করে নেন তার ও মৌসুমীর মধ্যে এখন দুরত্ব রয়েছে। ওমর সানী বলেন, আমি যা বলেছি স্পষ্ট করেই বলেছি। আমি শ্রদ্ধা রেখেই কথা বলতে চাই। আমার পরিবারের প্রতি, মৌসুমীর প্রতি আমার প্রচণ্ড শ্রদ্ধা আছে, আমার ছেলে-মেয়ের প্রতি আমার শ্রদ্ধা আছে। সে যা বলেছে, কি ভেবে বলেছে আই ডোন্ট নো। এ বিষয়টি নিয়ে কিছুদিন যাবৎ একটু দূরত্ব তো চলছিল। চেষ্টা করছিলাম। কিন্তু আপনারা ভালো জানবেন, ফোন রেকর্ড অনুযায়ী তার সাথে আমার ফোনেও কথা হচ্ছিল না। আমি তার ব্যাপারে মন্দ কথা, খারাপ কথা কিছুই বলবো না। কারণ সে স্টিল নাও আমার স্ত্রী। আমার সন্তানের মা।

তবে এই চিত্রনায়ক আরও বলেছেন, একটা কথা বলতে চাই- আমি কি বলেছি না বলেছি সম্পূর্ণ আমার ছেলে ফারদিন আমার মেয়ে ফাইজা আছে। আমাদের কাছে যথেষ্ট পরিমাণ প্রমাণ আছে জায়েদ খান যে ডিস্টার্ব করে। ফারদিন বলুক আর ফাইজা বলুক। আমার ছেলে-মেয়েরা বলুক এই বিষয়গুলো। আমি এই বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলতে চাই না।