দুর্বলতার সুযোগ নিয়েছেন জায়েদ: মৌসুমী পুত্র

গত কয়েকদিন ধরে চলচ্চিত্র অভিনেতা ওমর সানী ও জায়েদ খানের পাল্টাপাল্টি অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে উত্তাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং চলচ্চিত্রপাড়া। বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন অভিযোগে পুরো বিষয়টিই এখন জটিল আকার ধারণ করেছে। বিশেষ করে গত সোমবার ওমর সানীর অভিযোগের বিরুদ্ধে মৌসুমীর জায়েদ খানের পাশে দাড়ানোকে ঘিরে বিতর্কের পরিমাণ আরও বৃদ্ধি পেয়েছে।

জায়েদের সঙ্গে চলমান এই বিতর্ককে ঘিরে এ বিষয় নিয়ে মুখ খুলেছেন তারকা দম্পতির ছেলে ফারদিন। তিনি বলেন, আপনারা জানেন আম্মু কতটা উচ্চতা মেইনটেন করে সমাজে বসবাস করেন। হঠাৎ করে আমাকে নিয়েও যদি কেউ একটা কথা বলে সেটা কিন্তু সবাই বিশ্বাস করবেন না। গণমাধ্যমের অনেকেই আছেন আমাকে কোলে নিয়েছেন। যতটা বড় করে এই ঘটনা দেখা হচ্ছে, ততটা বড় এটা না। বাবা-মায়ের মধ্যে কিছু হয়ে থাকলে সেটা তাদের মধ্যেই সমাধান হবে। বাবাকে কেন্দ্র করে মা যদি কিছু বলে থাকে, তাহলে সেটা রাগ থেকেই হয়তো বলেছে। আমাদের ঘরের বিষয় এখনও এত বাজে আকারে পরিণত হয়নি বা হবেও না আশা করি।

ফারদিন বলেন, আমার বাবা সিনিয়র, তিনি (জায়েদ) বেয়াদবি করছেন। এ বেয়াদবির কারণে একটা থাপ্পড় দিয়ে বসেছেন। থাপ্পড়ের পর যদি তিনি পিস্তল বের করেন, সেটা তো অবশ্যই দুঃখজনক। এই শিক্ষাটা তো আমি আমার বাবা-মায়ের কাছ থেকে পাইনি। বাট আমাদের ফ্যামিলিতে জায়েদ খান কীভাবে ক্ষতি করতে চাচ্ছেন, এটা বলতে গেলে লম্বা ঘটনা। তিনি থাপ্পড় খাওয়ার যোগ্য দেখেই থাপ্পড় খেয়েছেন। আর আমার বাবা পাগল না। বুঝেই সেসব করেছেন। মায়ের দুর্বলতার সুযোগ নিয়েছেন তিনি। তাকে প্রপারলি শাস্তি দিয়েছেন আব্বা।

ফারদিন আরও বলেন, এক জায়গায় দেখলাম আম্মু নাকি বলেছেন, মিথ্যাচারে জড়াচ্ছেন ওমর সানি। এটা আসলে ঠিক না। আম্মু যদি কোথাও স্টেটমেন্ট দেয় আমি বলব, এটা ঠিক না। আসলে এটা পরিস্থিতি ঠান্ডা করার জন্যই বলেছেন। আম্মু আমার সাথে কথাও বলেছেন। উনিও চান নাই পত্রিকায়-টিভিতে এসব নিয়ে আলোচনা বা সংবাদ প্রকাশ হোক।

উল্লেখ্য, শুক্রবার ঢাকার একটি কনভেনশন সেন্টারে অভিনেতা ডিপজলের ছেলের বিবাহোত্তর সংবর্ধনার অনুষ্ঠানে চিত্রনায়ক জায়েদ খানকে অভিনেতা ওমর সানী চড় মেরেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ সময় জায়েদ খানও পিস্তল বের করে ওমর সানীকে গুলি করার হুমকি দেন বলেও জানা যায়।