ছবি তুলে হাজার হাজার টাকা দাবি না দিলে হুমকি , কক্সবাজারে আরেক ফটোগ্রাফার আটক

পর্যটক হয়রানি ও হুমতি-ধামকি দেওয়ার অভিযোগে কক্সবাজারে এক ফটোগ্রাফার আটকের রেশ কাটতে না কাটতেই সমুদ্রসৈকতের সুগন্ধা পয়েন্ট থেকে তহিদুল ইসলাম (৩০) নামের আরেক ফটোগ্রাফারকে আটক করেছে ট্যুরিস্ট পুলিশ। মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) দুপুরে তাকে আটক করা হয়। তহিদুল চকরিয়ার উত্তর লক্ক্যারচর এলাকার আক্তার হোসেনের ছেলে। তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার রিজিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম জানান, জেলাপ্রশাসনের অনুমোদন ছাড়া সৈকতে অবৈধভাবে ফটোগ্রাফারের কাজ করছিল তহিদুল। আটকের পর ফটোগ্রাফার কার্ড বা পোষাক কিছুই দেখাতে পারেননি তিনি। তিনি আরও বলেন, কিছু ফটোগ্রাফার জোর করে পর্যটকদের ছবি তোলে অতিরিক্ত টাকা দাবি করছে। পর্যটকেরা হয়রানির শিকার হচ্ছেন। এতে কক্সবাজারের বদনাম ছড়াচ্ছে। আটক এ ফটোগ্রাফারের বিরুদ্ধে এর আগেও পর্যটক হয়রানির অভিযোগ ছিল জানিয়ে তিনি বলেন, পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য, গত রোববার (১৭ জুলাই) একই অভিযোগে সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্ট থেকে মো. ইউনুস মিয়া (২৪) নামে এক ফটোগ্রাফারকে আটক করা হয়। পরদিন সোমবার তাকে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়। শুনানিতে দোষ স্বীকার করায় তাকে চারদিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন বিচারক মোহাম্মদ এহসানুল ইসলাম। ইউনুস কক্সবাজার পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ ঘোনারপাড়ার মৃত ইলিয়াছ মিয়ার ছেলে। তার ফটোগ্রাফ পোশাক নম্বর ৫৯২।