এবার ফাঁসির আসামি হিরো আলম!

এবার ফাঁসির কয়েদি হয়ে আসছেন আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। একটি নতুন গান করেছেন। এই গানে তিনি কয়েদি হিসেবে অভিনয় করেছেন। কয়েদির পোশাকে বৃহস্পতিবার রাতে ফেসবুকে এসে লাইভ করেন।

‘বিকৃত সুরে’ রবীন্দ্র সংগীত, নজরুল সংগীত ও লালন সংগীত গাইবেন না বলে সম্প্রতি পুলিশের কাছে মুচলেকা দিয়েছেন হিরো আলম। এই নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, মূল গণমাধ্যমে প্রচুর কথা হচ্ছে। আলোচনা সমালোচনা যখন তুঙ্গে তখনই আরেক পদক্ষেপ নিলেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে আলোচিত আশরাফুল আলম যিনি কি না হিরো আলম নামে পরিচিত।

‘আমার জেল হবে না ফাঁসি হবে’ এই শিরোনামের নতুন একটি গান করছেন। আজ শুক্রবার গানটি মুক্তি দেওয়ার কথা জানিয়ে হিরো আলম বলেন, ‘আমি এই গানে একজন কয়েদির চরিত্রে অভিনয় করেছি। গানটাও আমি নিজে গেয়েছি। আমার মনে হলো একজন কয়েদির বিষয়টি তলে ধরলে কেমন হয়, সে থেকে এই ভাবনা। ’

হিরো আলম বলেন, ‘দুইদিন ধরে তোলপাড় চলতেছে হিরো আলম নাকি গান গাইবে না। সে কথা ভুল। আমি বলেছি রবীন্দ্র সংগীত, নজরুল সংগীত ও লালন সংগীত গাইব না। আমার নিজের লেখা নিজের সুর করা গান তো গাইবো। সে অনুযায়ী আমার নিজের করা একটি গান নিয়ে আসছি। এখানে আমাকে ফাঁসির কয়েদি হিসেবে দেখা যাবে। আজ শুক্রবার গানটি মুক্তি পাবে। ’

সম্প্রতি আশরাফুল আলম হিরো আলমকে তলব করেছিল ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। বিষয়টি নিয়ে হিরো আলম বলেন, ‘আমাকে ডাকা হয়েছিল কয়েকটা অভিযোগে। আমি রাতের রানি নামের একটা গান করেছিলাম। সে গান নিয়ে আপত্তি ছিল দুইজন মডেলের। এরপর রবীন্দ্রসংগীত নিয়ে অভিযোগ ছিল। আমাকে হারুন স্যার বলেছেন, সুর ছাড়া রবীন্দ্রসংগীত গাওয়া যাবে না। তার মানে আমি রবীন্দ্রসংগীত গাইব না এটা তো না। আমাকে ভালো কনটেন্ট বানাতে বলেছেন। ’