দিল্লির হিং’সায় ঘরছাড়া মুসলমানদের জন্য বাংলার দরজা খুলে দিলেন মমতা ব্যানার্জী

আন্তর্জাতিক

দিল্লির হিং’সায় যে মুসলমানরা গৃহহী’ন কিংবা আ’ত’'ঙ্কে দিন কাটছে, তাদের বাংলায় স্বাগত জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। সেইসঙ্গে তিনি বললেন, ”আমি নিজে দু’মুঠো ভাত খেতে পেলে, তাদের একমুঠো ভাত নিশ্চয়ই দেব।”

এদিন ”বাংলার গর্ব মমতা” কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কলকাতার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে মমতা বলেন, ”দিল্লি থেকে ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছেন হাজার হাজর মানুষ। আজ তারা গৃ’হহা’রা, সন্তান হা’রা, খাদ্য হা’রা, সন্ত্বান হা’রা, তাদের জন্য আমা'দের কিছু করবার প্রয়োজন রয়েছে।”

মোদি সরকারের বি’রু’'দ্ধে সু’র চড়িয়ে মমতা বলেন, ”যারা মানুষকে আশ্রয়হী’ন করতে পারেন, তারা মানুষকে আশ্রয় দিতে পারেন না, সেক্ষ’মতা নেই।” এরপরই তিনি বলেন, ”এই বাংলা সেই বাংলা যারা মায়ের আঁচল দিয়ে সকলকে ভালোবাসে, চোখের জল মুছিয়ে দেয়।”

এদিন সভা মঞ্চ ছেকেই বাংলার তৃণমূলনেত্রী মমতা জানান যে , তৃণমূল কংগ্রে'স এবার দিল্লি হিং’সার দুঃ’স্থদের সাহায্যের জন্য তহবিল গঠন করছে। এর দায়িত্ব তিনি ডেরেক ও ব্রায়নকে দেন। মমতা বলেন, ”পাঁচ পয়সা দিতে পারলেও দেব, পঞ্চাশ পয়সা দিতে পারলেও দেব। আমি ভিক্ষা চাইনা কারো কাছে। আমি নিজে দু’মুঠো ভাত খেতে পেলে, আমি এক মুঠো ভাত তাদের দেব। নিশ্চয়ই দেব।”

অন্যদিকে, দিল্লির সং’ঘ’র্ষের জন্য মোদি সরকারকে তু’লোধ’না করেন তৃণমূলনেত্রী মমতা ব্যানার্জী। দিল্লির ঘটনাকে পরিক’ল্পি’ত গ’ণহ’ত্যা বলে মন্তব্য করেন তিনি৷ দিল্লিতে গু'জরাত মডেল প্রয়োগ হয়েছে বলেও অ’ভিযো’গ করেন তৃণমূলনেত্রী। একইসঙ্গে দিল্লির সং’ঘ’র্ষকে ধি’ক্কারজ’নক বলেও মন্তব্য করেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

Facebook Comments